ফাইবার মার্কেটপ্লেস এ প্রথম কাজ পাওয়ার গোপন কৌশল

ফাইবার মার্কেটপ্লেস এ প্রথম কাজ পাওয়ার গোপন কৌশল…

বর্তমান মার্কেটপ্লেসগুলোতে বেশ প্রতিযোগিতা লক্ষ্য করা যায়। আগের কোন কাজের ফিডব্যাক ছাড়া প্রথম কাজ পাওয়া একবারে সহজ ব্যাপার না। কারণ সবাই দক্ষ এবং পূর্বে কাজের অভিজ্ঞতা আছে এমন ফ্রিল্যান্সার হায়ার করতে চায়। তাই একজন নতুন ফ্রিল্যান্সারকে ফাইবার মার্কেটপ্লেসে কাজ পাওয়ার জন্য কয়েকটি বিষয়ে নজর দিতে হবে।

  • নিজের যে সকল স্কিল আছে সেগুলো লিখুন। অবশ্যই খেয়াল রাখবেন, স্কিল হিসেবে লিখেছেন এমন প্রত্যেকটি বিষয়ের উপর আপনার পোর্টফোলিও আছে কি না।
  • আপনার কাজগুলো থেকে বেশ কিছু ভাল ভাল কাজ পোর্টফোলিওতে সংযুক্ত করুন। যে স্কিলগুলোর পোর্টফোলিও নেই, সেগুলো প্রথমদিকে না লেখাই ভাল। কারণ ক্লায়েন্ট আপনি কি যোগ্যতা লিখেছেন তা দেখার চেয়ে পূর্বে কি কাজ করেছেন তা দেখছে পছন্দ করে।
  • টাইটেলে এমনভাবে গুছিয়ে লিখুন যে, প্রথম দেখাতেই ক্লায়েন্ট আপনার সম্পর্কে একটি পূর্ণাঙ্গ ধারণা পেতে পারে। এতে আপনার কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। ক্লায়েন্টকে বলতেও পারেন যে, প্রথম হিসেবে একটু কমেই কাজটা করে দিতে আপনি রাজি আছেন। এতে সে আপনাকে কাজটি দিতেও পারে।
  • ইংরেজিতে একটা কথা আছে, Never Give up ! অর্থাৎ কখনও হাল ছেড়ো না। চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। প্রথম কাজটি পাওয়া একটু কষ্টকর। কিন্তু একবার কাজ পাওয়া শুরু করলে আর পেছনে তাকাতে হবে না যদি আপনি যোগ্যতাসম্পন্ন, দক্ষ লোক হোন।

কা‌জের ক্ষেত্র নির্বাচন

কাজ শুরুর প্রথম শর্ত হ‌লো, নির্ধা‌রিত সেক্টর বেঁছে নেওয়া৷ আপনি ডিজাইনার হ‌বেন না‌কি রাইটার তা আপনার ব্যক্তিগত পছন্দ৷ ফ্রিল্যান্সিং এর অ‌নেকগুলো ক্ষেত্র র‌য়ে‌ছে যার ম‌ধ্যে উল্লেখযোগ্য ১৫‌টি ফিল্ড অফ ইন্টা‌রেস্ট ফ্রিল্যান্সিং কি? এছাড়া Google, Yahoo, Bing যে কো‌নো সার্চ ই‌ঞ্জিন থে‌কে আ‌রো বিস্তা‌রিত জে‌নে নি‌তে পারেন৷

অনলাইন প্লাটফ‌র্মে একাউন্ট তৈ‌রি

ফ্রিল্যান্সিংয়ে কাজ পাওয়ার জন্য অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং সাইটগু‌লো আপনার যাত্রা‌কে আ‌রো সহজ ক‌রে দেয়৷ নিজস্ব প্রোফাইল তৈ‌রি করা লাগে এই প্ল্যাটফর্মগু‌লো‌তে। সেখা‌নে কা‌জের রি‌ভিউ এর ওপর ভি‌ত্তি ক‌রে আপনার দক্ষতা প‌রিমাপ করা হয়৷ যার প্রোফাই‌লে যত বে‌শি ভা‌লো রি‌ভিউ থাকে তার কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা ও জন‌প্রিয়তা ততই বে‌শি থাকে৷

পছ‌ন্দের নিশ নির্ধারণ

নিশ নির্বাচন কিন্তু আপনার কাজ‌কে আ‌রো নি‌র্দিষ্ট ক‌রে তোলে৷ এক‌টি উদাহরণ প্রয়োগ ক‌রে বিষয়‌টি আ‌রো সহজ ক‌রা যাক ধরুন, আপ‌নি একজন ডিজাইনার হ‌তে চান। আপ‌নি UI/UX ডিজাইন নি‌য়ে এগো‌তে চা‌চ্ছেন না‌কি গ্রা‌ফিক্স ডিজাইন নি‌য়ে প্রথ‌মে সে‌টি নির্ধারণ করুন৷ আপ‌নি নির্বাচন কর‌লেন আপ‌নি গ্রা‌ফিক্স ডিজাইনার হ‌তে চান। তাহলে, সে‌ই পছ‌ন্দের নিশটি হ‌তে পা‌রে লো‌গো ডিজাইন, ব্যানার ডিজাইন, ফ্লায়ার ডিজাইন, টিশার্ট ডিজাইন, প্যাকে‌জিং, বিজ‌নেস কার্ড।

নির্বা‌চিত দক্ষতা বৃ‌দ্ধি ও চর্চা

শুধু পছ‌ন্দের ক্ষেত্র ও নিশ নির্বাচন ক‌রে ব‌সে থাক‌লেই কিন্তু হ‌বেনা৷ প্রতি‌নিয়ত সেই বিষ‌য়ে নতুন নতুন জ্ঞান অর্জন ও চর্চা কর‌তে হ‌বে আপনা‌কে৷ আপ‌নি চর্চার জন্য ভি‌ডিও টিউ‌টো‌রিয়াল, ব্লগ‌পোস্ট ও ইন্টার‌নে‌টের সহায়তা নি‌তে পা‌রেন৷

গিগ তৈ‌রি

আপনার দক্ষতার প্রমাণস্বরূপ কিছু স্যাম্পল কাজ তৈ‌রি ক‌রে অনলাইন প্ল্যাটফর্মগু‌লো‌র প্রোফাই‌লে উপস্থাপন করতে হবে৷ আপনার তৈ‌রি প্রতি‌টি কাজেরই এ‌ক‌টি করে গিগ থাকে লাগবে৷ আপনার পোর্টফো‌লিওকে গিগগু‌লো সমৃদ্ধ ক‌রে৷ আপ‌নি একজন UI/UX ডিজাইনার হ‌ন তাহলে তার কিছু স্যাম্পল ডিজাইন প্রোফাইলগু‌লো‌তে আপ‌লোড করুন৷ য‌দি য‌দি রাইটার হন ত‌বে লেখার, ও‌য়েব ডে‌ভেলপার হন ত‌বে ও‌য়েব পেইজের স্যাম্পলগু‌লো উপস্থাপন করুন৷ এ‌তে  আপনার কাজ‌কে বায়াররা সহ‌জেই যাচাই বাঁছাই কর‌তে সক্ষম হ‌বে৷

সেল্ফ মা‌র্কেটিং

ফ্রিল্যান্সিং সাইটগু‌লোতেই শুধু নি‌জের প্রোফাই‌লে কাজ প্রকাশ করা য‌থেষ্ট নয়৷ পাশাপা‌শি নি‌জে‌কে মা‌র্কেটিং করারও প্রয়োজন৷ নি‌জের দক্ষতা ও কাজগু‌লো নি‌জের স্যোশ্যাল মি‌ডিয়া প্রোফাইলগু‌লো‌তে(Facebook, Instagram, Linkedin, twitter etc), ফোরা‌মে(Fiverr, Toptal, GoLance, Simply Hired, Writer Access etc), ব্ল‌গিং সাই‌টে প্রচার কর‌তে পা‌রেন৷ এছাড়াও, নি‌জের প‌রি‌চিত‌ ও বন্ধুদের কা‌ছেও প্রচার কর‌তে পা‌রেন আপনি৷

কা‌জের মূল্য নির্ধারণ

আপ‌নি যেইরকম সা‌র্ভিসই প্রদান করে থাকেননা কে‌নো, কাজ শুরুর পূ‌র্বে আপনার কা‌জের এক‌টি মূল্য নির্ধারণ করে দিতে হ‌বে৷ মূল্য নির্ধার‌ণ করার ক্ষে‌ত্রে আপনা‌কে অবশ্যই মাথায় রাখ‌তে হ‌বে কোন কাজ‌টি নি‌য়ে আপ‌নি ফ্রিল্যান্সিং কর‌ছেন, সে‌টি কর‌তে কত সময় লা‌গে এবং ‌সেই ফি‌ল্ডে কতটা অ‌ভিজ্ঞ আপ‌নি৷ মূলত নতুন‌দের জন্য প্রার‌ম্ভিক মূল্য ন্যূনতম ৫ ডলার থে‌কে শুরু৷ দেশী ক্লা‌য়েন্ট‌দের বেলায় আবার সে‌টি কাজ ভি‌ত্তিক ১৫০-২০০ টাকা থে‌কে শুরু হ‌তে পা‌রে৷ তাই, শুরুর দি‌কে কিন্তু মূল্য নি‌য়ে হতাশ হওয়া যা‌বেনা৷ কা‌জে লে‌গে থাক‌তে পারলে অ‌ভিজ্ঞতা বৃ‌দ্ধির সা‌থে সা‌থে কা‌জের মূল্যও বৃ‌দ্ধি পে‌তে থাক‌বে৷ দক্ষতা ও অ‌ভিজ্ঞতা‌ অনুসা‌রে ১০০-৫০০ ডলার বা তার বে‌শিও ইনকাম করা সম্ভব৷

যেভা‌বে ক্লা‌য়েন্ট/বায়ার পা‌বেন

বে‌শিরভাগ নতুন ফ্রিল্যান্সারদের জন্য প্রথম ক্লা‌য়েন্ট পাওয়া এক‌টি ধৈর্য্যের পরীক্ষা৷ কারণ, কাজ শুরু হওয়ার সাত দি‌নের ম‌ধ্যেও আপ‌নি কাজ পে‌তে পা‌রেন কিংবা সাত মাসও অ‌পেক্ষা কর‌তে হ‌তে পা‌রে৷ কা‌জের দক্ষতা ও ভাগ্যের ওপর ক্লা‌য়েন্ট পাওয়ার বিষয়‌টি নির্ভরশীল৷ এছাড়া, রেফা‌রেন্সের ওপর ক্লা‌য়েন্ট পাওয়া নির্ভরশীল৷ আপ‌নি প্রথম কাজ‌টি কা‌রো রেফা‌রে‌ন্সে পে‌তে পা‌রেন৷ এছাড়া, প্রথম ক্লা‌য়েন্ট পাওয়ার পর নির্ধারিত সম‌য়ের ম‌ধ্যে কাজটি ক্লা‌য়ে‌ন্টের মন মত ক‌রে দি‌তে পার‌লে তি‌নি খু‌শি হ‌য়ে পরবর্তী কাজগু‌লো আপনা‌কে দি‌তে পা‌রে৷ অথবা আপনা‌কে রেফার কর‌তে পা‌রে অ‌ন্যের আউট‌সো‌র্সের জন্য৷ কাজ পাওয়ার নেটওয়ার্কিং এভা‌বেই গ‌ড়ে উ‌ঠে৷

শেষ কথা হলো, বহু সফল ফ্রিল্যান্সার এমন পাওয়া যাবে যারা প্রথম কাজটি পাওয়ার জন্য মাসকে মাস চেষ্টা করেছেন। বর্তমানে হয়তো তারা সময়ের অভাবে অনেক কাজই ছেড়ে দিচ্ছেন। যেকোনো ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্মে ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে সাফল্যের আকাঙ্খা নিয়ে লেগে থাকতে হবে। অধ্যাবসায় ছাড়া ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব না। ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্মে আপনি যখন কাজ করতে আসবেন, অবশ্যই আপনাকে যোগ্যতা নিয়ে আসতে হবে। যে কোন সেক্টরে আপনি দক্ষতা অর্জন করে, সেই দক্ষতার প্রয়োগ করার জন্যই ফ্রিল্যান্সিং।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলো কোন কাজ শেখার স্থান নয়। বরং কাজ শেখার পরবর্তী স্থান হলো এইসব মার্কেটপ্লেসগুলো। তাই দক্ষতা অর্জন করুন অতঃপর ফ্রিল্যান্সিং করুন। তবেই সফলতার রাস্তা আপনার সামনে উন্মুক্ত হবে। নতুন‌দের জন্য ‌ফ্রিল্যান্সিং শুরু করাটা হলো আসল চ্যালেঞ্জ৷ ত‌বে, আত্ন‌বিশ্বাস ও ধৈর্য্য ধরে এই ফি‌ল্ডে লে‌গে থাক‌তে পার‌লে সফলতা পাওয়া সম্ভব৷ আশাক‌রি, ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার ব্যাপা‌রে  নতুনরা আর কোনো দ্বিধায় ভুগ‌বে না।

Leave a Comment